ক্রিকেট

এক_ওভারে_গেইলের ৬,৬, ৪, ৪, ৬, ৬!!!

‘ক্যারিবিয়ান দৈত্য’র দুরন্ত ৯৪ রানের জন্য গতরাতে ভ্যাঙ্কুভার নাইটস ছয় উইকেটে হারিয়েছে এডমন্টন রয়্যালসকে। ক্রিস গেইলের দাপট চলছে গ্লোবাল টি টোয়েন্টি প্রতিযোগিতায়।

১৬৬ রান তাড়া করতে নেমে ভ্যাঙ্কুভার নাইটস-এর শুরুটা ভাল হয়নি। শুরুতেই টোবিয়াস ভিসির উইকেট হারায় তারা। দ্বিতীয় উইকেটে গেইলের সঙ্গী হন শ্যাডউইক ওয়ালটন। মাত্র ১৭ রানে তিনিও ফিরে যান।

ওই ওভারে ৩২ রান নেন গেইল। চারটি ছক্কা ও দু’টি বাউন্ডারি হাঁকান গেইল। প্রথম দুই বলে দুটি ছক্কা, মাঝখানের দুই বলে দুটি চার, শেষের দুই বলে আবার ছক্কা। তবে দ্রুত উইকেট হারালেও গেইলকে থামানো যায়নি। আর এই ঝড়টা সবচেয়ে বেশি গেছে পাকিস্তানের লেগ স্পিনার শাদাব খানের ওপর দিয়ে। শাদাবের করা ইনিংসের ১৩তম ওভারে বিধ্বংসী মেজাজে ধরা দেন ইউনির্ভার্স বস।

শেষ পর্যন্ত ৪৪ বলে ৯৪ রান করে কাটিংয়ের বলে ফেরেন গেইল। পরের বলেই আন্দ্রে রাসেল আউট হন। যদিও তাতে ম্যাচ জিততে সমস্যা হয়নি দলটির। গেইল ও রাসেলের বিদায়ের পর হাল ধরেন শোয়েব মালিক। মালিকের ১৭ বলে অপরাজিত ৩৪ রানের সৌজন্যে ম্যাচ জিততে সমস্যা হয়নি নাইটসদের।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে এডমন্টন রয়্যালস-এর শুরুটা ভাল হয়নি। বেন কাটিংয়ের ৭২, মুহাম্মদ নওয়াজের ৪০ রানে এডমন্টন রয়্যালস করে ৯ উইকেটে ১৬৫ রান।

ক্যারিয়ারের এই পড়ন্ত বেলায় এসেও গেলের ব্যাট কথা বলছে। ভারতের বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজে খেলবেন তিনি। বিরাট কোহালির বোলারদের তাই পরীক্ষা দিতে হবে তার সামনে। এই টুর্নামেন্টে আগের ম্যাচেই সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন গেইল। মন্ট্রিয়েল টাইগার্সের বিরুদ্ধে ৫৪ বলে ১২২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন। সেই ম্যাচটি অবশ্য বৃষ্টির জন্য পরিত্যক্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

[social_share_button themes='theme1']